Ticker

6/recent/ticker-posts

চোখের নিচের কালো দাগ কেন হয় এবং দাগ দূর করার উপায়


 

চোখের নিচের কালো দাগ কেন হয় এবং দাগ দূর করার উপায়

আমাদের চোখের নিচে যে কালো দাগ পরে এটাকে আন্ডার আই ডার্ক সার্কেল বলা হয়। আর চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় এটাকে বলা হয় পেরিঅরবিটাল অথবা আনফ্রাঅরবিটাল বা পিকমেন্টেশন।  আমরা চোখের নিচের কালো দাগকে যতটা হালকাভাবে নেই এটা আসলে ততটা হালকা ভাবে নেওয়ার জিনিস নয়।

চোখের নিচে কালো দাগ এটা নারী ও পুরুষের সৌন্দর্যতার সাথে সম্পৃক্ত একটি বিষয়। চোখের নিচের কালো দাগ পড়ার বেশ কয়েকটি কারণ রয়েছে। এর মধ্যে অনেক সিরিয়াস কিছু কারণ রয়েছে এবং পাশাপাশি কিছু নরমাল কারণও রয়েছে। আজকে আমরা আমাদের এই পোস্টে চোখের নিচের কালো দাগ সম্পর্কে জানব। এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক কালো দাগ কেন হয় :

চোখের নিচের ভাগে মেকআপ ব্যবহার: মেকআপ ব্যবহার করার সময় চোখ এর আশেপাশে পরিস্কার না হলে চোখের নিচের ভাগে মেকআপ জমা হয়ে কালো দাগ হতে পারে। এই মেকআপ বিল্ডআপ পরিস্কারের অভাব দেখতে পাওয়া যায় চোখের  নিচের কালো দাগ।  বিশেষভাবে যখন খোলা চোখে আইলাইনার প্রয়োগ করা হয়।

অপরিস্কার ত্বক: চোখের নিচের ভাগের ত্বক অপরিস্কার থাকলে সেখানে মলিনতা জমা হয়ে কালো দাগের উৎপত্তি হতে পারে। এটি ধীরে ধীরে কালো দাগের রূপ ধারণ করতে পারে।

পূর্বের চোখের  সমস্যা: যদি আপনার পূর্বে কোনো  চোখ সমস্যা থেকে থাকে , যেমন চোখের জলনা, চোখের রোগ, চোখের আবর্তন সমস্যা ইত্যাদি, তাহলে এই সমস্যা এই নিচের কালো দাগের জন্য কারণ হতে পারে।


নিঃশ্বাস বা অব্যাহত চোখ সময়ের দৌরায়: চোখের নিচে অব্যাহত চোখ অথবা নিঃশ্বাসের ফলে ব্লাড ক্যাপিলের চাপ বাড়তে পারে, যা নিচের কালো দাগের সৃষ্টি করতে সাহায্য করতে পারে।


এলার্জির কারণে :অনেকের ক্ষেত্রে দেখা যায় এলার্জির কারণে চোখের নিচে কালো দাগ পড়ে যায়। আর এই কালো দাগ যেহেতু অ্যালার্জি রিএকশন তাই এক্ষেত্রে এটা নিয়ে দুশ্চিন্তা করার কোন কারণ নেই। সঠিক চিকিৎসা করানোর মাধ্যমে চোখের নিচের কালো দাগ খুব দ্রুত ভালো হয়ে যাবে।


বার্ধক্যের কারণে : চোখের নিচে কালো দাগ হওয়ার আরেকটি অন্যতম কারণ হচ্ছে বার্ধক্য। সাধারণত যাদের বয়স ৫০ বছরের বেশি তাদের চোখের নিচে কালো দাগ খাওয়াটা স্বাভাবিক ব্যাপার। এটা যে কারো হতে পারে অর্থাৎ ছেলে ও মেয়ে উভয়ের ক্ষেত্রেই কালো দাগ হতে পারে।


সূচিপত্র:

  • চোখের নিচের কালো দাগ কেন হয় এবং দাগ দূর করার উপায় 
  • চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার উপায়
  • চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার ঘরোয়া কিছু উপায়
  • টুথপেস্ট দিয়ে চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার উপায়

চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার উপায়


চোখের নিচের কালো দাগ পড়লে সেই দাগ কমানোর জন্য অনেকেই অনেক ভাবে চেষ্টা করে থাকে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এটি সহজে কমানো সম্ভব হয় না। আর এটার স্থায়ী সমাধানের জন্য যদি বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া হয় তাহলে সবচেয়ে বেশি উপকার পাওয়া যায়। সেই ক্ষেত্রে আপনাকে কিছু কাজ করতে হবে, চলুন চোখের নিচে কালো দাগ দূর করার জন্য কিছু ফর্মুলা দেখা যাক। 


আরো পড়ুন চোখ ওঠা রোগের লক্ষণ, প্রতিকার ও করণীয় সমূহ


সিরাম : আপনার চোখের কালো দাগ দূর করার জন্যে আপনি সিরাম ব্যবহার করতে পারেন। অনেক বিশেষজ্ঞদের মধ্যেই সামান্য পরিমাণ ক্যাফেনযুক্ত আই  সিরাম ব্যবহার করলে চোখের নিচের কালো দাগ গুলো ধীরে ধীরে চলে যায়। আর যদি এটা নিয়মিত ব্যবহার করা হয় তাহলে চোখের নিচের কালো দাগ কমে আসে। সেই সঙ্গে আপনার চোখের নিচের চামড়ার শুষ্ক ভাবো অনেক কমে যাবে। 


আন্ডার আই ক্রিম :আপনি যদি নিয়মিত চোখের নিচে কালো দাগ দূর করার জন্য আন্ডার আই ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন তাহলে চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার ক্ষেত্রে এটা আপনাকে সাহায্য করতে পারে। তাই আপনি প্রতিদিন চোখের নিচে আন্ডার আই ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। আন্ডার আই ক্রিম ব্যবহারের ফলে আপনার চোখের নিচের চামড়াকে পাতলা রাখতে সাহায্য করে। যার ফলে আপনার চোখের নিচে সহজে কালো দাগ পড়ে না। তবে লক্ষণীয় বিষয় হচ্ছে একজন বিশেষজ্ঞ পরামর্শ নিন, আপনার চোখের জন্য কোন ক্রিম সহায়ক হবে সেটি তিনি বলে দেবেন।


ঠান্ডা চামচ :চোখের নিচে কালো দাগ দূর করার জন্য ঠান্ডা চামচ আপনার সহজ একটি সমাধান হতে পারে। একটি পরিষ্কার চা চামচ ফ্রিজের মধ্যে রেখে প্রথমে ভালোভাবে ঠান্ডা করে নিতে পারেন। তারপর সেটি বের করে চোখের নিচের অংশে হালকা করে চেপে ধরে রাখুন অল্প সময়ের জন্য। এই উপায় সপ্তাহে দুই থেকে তিনদিন মেনে চলতে পারেন। এতে করে আপনার চোখের নিচের কালো দাগ খুব দ্রুতই অনেকটাই কমে আসবে। 


সান স্ক্রিন: বেশী সূর্যের কাছাকাছি থাকলে, চোখের নিচের কালো দাগের উত্থানের হতে পারে। সান স্ক্রিন ব্যবহার করে সূর্যের ক্ষতি থেকে স্কিন রক্ষা করে । আর বিভিন্ন ধরণের  ক্রিম, লোশন বা স্প্রে ব্যবহার করার মাধ্যমে চোখের নিচের কালো দাগ হওয়া থেকে বিরত রাখা যায়। 


ম্যাসাজ : মাসাজ আমাদের অনেক সমস্যারই সমাধান করে থাকে। আমাদের শরীরে যদি কোথাও ব্যথা পাই তাহলে এই মাসাজ জাদুর মত কাজ করে থাকে। শুধুমাত্র যে ব্যথা তা কিন্তু নয় চোখের নিচে কালো দাগ দূর করার জন্য এই মাসাজ অনেক সাহায্য করে থাকে। নিয়মিত চোখের নিচের অংশে হালকা ম্যাসাজ  করার মাধ্যমে চোখের নিচে কালো দাগ দূর করা যেতে পারে। চোখের উপরের অংশ দিয়ে চোখের চারপাশে ক্রিম লাগানোর মত করে মেসেজ করতে থাকলে  চোখে টান টান ভাব আসে ফলে আস্তে আস্তে কালো দাগ দূর হতে থাকে।


চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার ঘরোয়া কিছু উপায়


শসা :সজীব সতেজ শসা সুন্দর করে স্লাইস করে কেটে ৩০ মিনিট ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে নিন। তারপর এটা ফ্রিজ থেকে বের করে ১০ মিনিট চোখের উপর রেখে পরিষ্কার পানি দিয়ে চোখ ধুয়ে ফেলুন। দিনে কমপক্ষে দুবার এবং একটানা সাত দিন এটা ব্যবহার করতে থাকুন। আবার শসা এবং লেবুর রস সমান পরিমাণ মিশিয়ে আপনার ত্বকে মাখতে পারেন। এটা দিনে একবার এবং টানা ৭ দিন মাখুন।  আপনার ত্বকের স্বাভাবিক রং ফিরে আসবে। 


গোলাপজল :সাধারণত প্রাকৃতিকভাবেই গোলাপজল আমাদের শরীরে স্কিনটোনার হিসেবে কাজ করে থাকে। প্রথমে আপনি ছোট পরিষ্কার কাপড়ের টুকরা অথবা আইপ্যাড গোলাপ জলে কয়েক মিনিট ভিজিয়ে রাখুন। এটা সম্পূর্ণভাবে ভিজে গেলে চোখ বন্ধ করে চোখের পাতার উপর ১০থেকে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এটা দিনে কমপক্ষে একবার ব্যবহার করবেন এবং টানা সাত থেকে দশ দিন ব্যবহার করুন।  ধীরে ধীরে চোখের স্বাভাবিক রং ফেরত আসবে।


টমেটো: টমেটো রস আপনার চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার জন্য অনেক ভালো একটি উপাদান। টমেটো রস এবং সমপরিমাণ লেবুর রস একসাথে মিশিয়ে চোখের নিচে মেখে দশ মিনিট পর তা ধুয়ে ফেলুন এবং এটি আপনি টানা সাত দিন ব্যবহার করুন। ধীরে ধীরে আপনার চোখের কালো দাগ দূর হয়ে যাবে। 


ঠান্ডা দুধ : দুধের মধ্যে রয়েছে ভিটামিন এ। আর নিয়মিত ঠান্ডা দুধ ব্যবহার করার মাধ্যমে চোখের নিচের কালো দাগ দূর হয়ে যায়। ঠান্ডা দুধের মধ্যে তুলার বল ভিজিয়ে রাখুন। তারপর ভেজা তুলার বল আপনার চোখের উপর রেখে দিন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করার পর তোলা আপনার চোখ থেকে সরিয়ে নিন। তারপর মুখ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আর এটা নিয়মিত ব্যবহার করার মাধ্যমে চোখের নিচের কালো দাগ দূর হয়ে যাবে। 


কাঁচা আলু: সর্বপ্রথম আলু ঠান্ডা করে তা ব্লেন্ডারে ভালোভাবে পিষে পেস্ট তৈরি করে নিন। কাঁচা আলুর পেস্ট আপনার চোখের দাগের উপর মেখে ১০ থেকে ১৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আর আলু  যদি পেস্ট করতে সমস্যা হয় তাহলে আলু শসার মত স্লাইস  করে কেটেও ব্যবহার করতে পারেন। সপ্তাহে এক থেকে দুইবার ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার চোখের কালো দাগ দূর হয়ে যাবে।


টুথপেস্ট দিয়ে চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার উপায়


টুথপেস্ট দিয়েও আপনি আপনার চোখের কালো দাগ দূর করতে পারবেন। প্রথমে একটি তুলোর বলের মধ্যে গোলাপজল মিশিয়ে আপনার চোখের নিচে ভালো করে পরিষ্কার করে নিতে হবে। এরপর টুথপেস্ট এবং এলোভেরা জেল একসাথে মিশিয়ে নিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার এই পেস্ট আপনার চোখের নিচে দিয়ে দুই থেকে তিন মিনিট আলতোভাবে ঘষতে থাকুন।

পেস্ট ঘষা শেষ হওয়ার পর তা ঠান্ডা পানি দিয়ে চোখটি ধুয়ে নিন ভালো করে। যার ফলে আপনার চোখের পাশে যদি কোন কালো দাগ থাকে তাহলে এলোভেরা জেল আপনার চোখের কালো দাগ দূর করে দিবে। আর টুথপেস্ট ব্যবহারের ফলে চোখের কালো দাগ দূর হয়ে গিয়ে চোখটা পূর্বের চেয়ে অনেক বেশি ঠান্ডা করে দিবে। আর এইভাবে তিন থেকে সাত দিন ব্যবহার করার মাধ্যমে চোখের কালো দাগ দূর হয়ে যাবে। তবে এটা ব্যবহার করার জন্য আপনি রাতকে বেছে নিতে পারেন। আর এটা ব্যবহার করার ফলে আপনার চোখ আরো বেশি সুন্দর ও আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।

Post a Comment

0 Comments